মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৩rd জুলাই ২০১৮

বাপবিবো এর জেনারেল ম্যানেজার সম্মেলন-২০১৮


প্রকাশন তারিখ : 2018-07-23

বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (বাপবিবো) ২০১৮-১৯ অর্থ বছরের ০২ (দুই) দিন ব্যাপী (২০-২১ জুলাই)  জেনারেল ম্যানেজার সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব নসরুল হামিদ, এমপি। এছাড়া, উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ বিভাগের মাননীয় সচিব ডঃ আহমদ কায়কাউস, পিডিবি'র চেয়ারম্যান প্রকৌশলী খালেদ মাহমুদ, বাপবিবো’র সদস্য (প্রশাসন) ও সরকারের অতিরিক্ত সচিব জনাব মোঃ ইয়াকুব আলী পাটওয়ারী, পাওয়ার সেল এর মহাপরিচালক প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন, পিজিসিবি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব মোঃ মাসুম-আল-বেরুনী, ওজোপাডিকো’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব মোঃ শফিক উদ্দিন প্রমুখ। বাপবিবোর্ডের মাননীয় চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মঈন উদ্দিন (অবঃ) সম্মেলনে যাবতীয় কার্যক্রমের উপর আর্থিক, কারিগরী ও ব্যবস্থাপনাগত বিষয়ে পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপন করেন। বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব মহোদয় অংশগ্রহণকারী জেনারেল ম্যানেজারগণের উদ্দেশ্যে বলেন, এই বছরের সম্মেলনের প্রতিপাদ্য “হয়রানিমুক্ত বিদ্যুতের অঙ্গীকার” নিশ্চিত করতে এবং মাঠ পর্যায়ে দুর্নীতি রোধকল্পে সকলকে সজাগ থাকার নির্দেশনা প্রদান করেন। সম্মেলনে মাননীয় প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিদ্যুতে সরকারের অনেক সাফল্য কিন্তু কোন কারণে বিদ্যুৎ না থাকলে সব সাফল্য ম্লান হয়ে যায়। এজন্য নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে মাঠ পর্যায় থেকে আগত সকল জেনারেল ম্যানেজারগণকে তিনি নির্দেশনা দেন। বিআরইবির শতভাগ বিদ্যুতায়নের কাজে তিনি সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, নির্বাচনের বছর মানুষকে আরো বেশি করে সেবা দিতে হবে। মাননীয় প্রতিমন্ত্রী মহোদয় আরও বলেন, নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সেবা নিশ্চিত করতে সাব-স্টেশন নির্মাণ ও ওভারলোডেড ট্রান্সফরমার পরিবর্তন, যথাসময়ে রাইট অব ওয়ে নিশ্চিত করাসহ দেশের বিভিন্ন শিল্পাঞ্চলের লোড বৃদ্ধির বিষয়টি বিবেচনায় রেখে ইতোমধ্যে গৃহীত পরিকল্পনা রিভিউ করার নির্দেশনা প্রদান করেন। এ সম্মেলনে দেশের ৮০টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার/জেনারেল ম্যানেজারগণসহ বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ অংশগ্রহণ করেন। সম্মেলনে বাপবিবোর্ডের সেরা কর্মকর্তা সদস্য (বিতরণ ও পরিচালন) জনাব মোঃ মোস্তফা কামাল, মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা ময়মনসিংহ পল্লী সমিতি-২ এর সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার জনাব জহিরুল ইসলাম এবং বাপবিবোর্ডের সেরা কর্মচারী জনাব সামছুল হুদা চৌধুরী-এর হাতে মাননীয় প্রতিমন্ত্রী মহোদয় শুদ্ধাচার সম্মাননাপত্র তুলে দেন।

 

সম্মেলনে ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরের নতুন এপিএ টার্গেট এবং বিগত বছরের এপিএ অর্জন বিষয়ে বিস্তারিত পর্যালোচনা করা হয়। অনুষ্ঠানে শতভাগ উপজেলা বিদ্যুতায়নের টার্গেট এবং মাঠ পর্যায়ে বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে আলোচনা করা হয়। ১৯৭৮ থেকে ২০০৮ সাল নাগাদ ৩০ বছরে বাপবিবোর্ডের গ্রাহক সংখ্যা ছিল ৭৪ লক্ষ। বর্তমান সরকারের ০৯ বছরে আরও ১ কোটি ৫৭ লক্ষ নতুন সংযোগ দেওয়া হয়েছে। এখন বাপবিবোর্ডের গ্রাহক সংখ্যা ২ কোটি ৩১ লক্ষ। বর্তমানে বাপবিবোর্ডের বিদ্যুৎ বিতরণ লাইন ৩ লক্ষ ৯৭ হাজার কিলোমিটার, বিদ্যুৎ সুবিধাভোগী গ্রাহক ৮৬%, ৮৩৭টি ৩৩/১১ কেভি উপকেন্দ্রের মোট ক্ষমতা ৯,৭৭৫ এমভিএ, সিষ্টেম লস ১১%, বকেয়া ১.১০ মাস।  এছাড়া, ইতোমধ্যে ২৪০টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন সম্পন্ন হয়েছে। অবশিষ্ট ২২০টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

 

২০১৭-১৮ অর্থ বছরে বাপবিবোর্ড ৫৫ হাজার কিঃমিঃ লাইন নির্মাণ ও ১৮০০ এমভিএ ক্ষমতা সম্পন্ন  উপকেন্দ্র স্থাপন করে ৩৯ লক্ষ গ্রাহককে নতুন সংযোগ প্রদান করেছে। উক্ত অর্থ বছরে বাপবিবোর্ডের সিষ্টেম লস ১১% এবং বকেয়া (মাস) এর পরিমাণ ১.১০। এছাড়া, ব-এচ এর আওতাভূক্ত ক্রয়কার্যের শতভাগ সম্পন্ন করা হয়েছে এবং ২৫টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ওঝঙ সার্টিফিকেট অর্জন করেছে। এদিকে ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে বাপবিবোর্ড ৫০ হাজার কিলোমিটার বৈদ্যুতিক লাইন নির্মাণ ও  ২১৭৭ এমভিএ ক্ষমতাসম্পন্ন উপকেন্দ্র নির্মাণ করে ২৫ লক্ষ নতুন সংযোগ প্রদান করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।


Share with :

Facebook Facebook