মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

প্রি-পেমেন্ট মিটার প্রকল্প

“শেখ হাসিনার উদ্যোগ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ” শ্লোগানটি সামনে রেখে 2021 সালের মধ্যে সরকার সারা বাংলাদেশের ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ সুবিধা পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে বদ্ধ পরিকর। উৎপাদিত বিদ্যুতের সদ্বব্যবহার ও অপচয় রোধ তথা স্বয়ংক্রিয় বিলিং সুবিধা সৃষ্টি করার জন্য 2011 সালে প্রি-পেমেন্ট মিটার এর প্রবর্তন করেন। বর্তমানে প্রি-পেমেন্ট মিটারসমূহ আরো আধুনিকায়ন করে অন-লাইন স্মার্ট প্রি-পেমেন্ট মিটার এর ষ্টান্ডার্ট প্রণয়নকরত: 2025 সালের মধ্যে 2.0 কোটি প্রি-পেমেন্ট মিটার ক্রয়ের উদ্যোগ গ্রহন করা হয়েছে। বর্তমানে বাপবিবোতে "পল্লী বিদ্যুতায়ন কার্যক্রমের আওতায় ঢাকা বিভাগীয় অঞ্চলে প্রি-পেমেন্ট ই-মিটার স্থাপন (পর্যায়-১)" নামক একটি প্রকল্প চলমান রয়েছে যার মেয়াদকাল ১/৭/২০১৫ হতে ৩০/৬/২০২০ খ্রি পর্যপ্ত।

প্রি-পেমেন্ট মিটারের সুবিধা (সরকার) : 

  • অগ্রিম রাজস্ব আদায়।
  • ওভারলোড নিয়ন্ত্রণ ।
  • পিক-লোড Fixing /Re-fixing সুবিধা।
  • অটো Connection / Disconnection সুবিধা।
  • পরিমিত বিদ্যুৎ ব্যবহারে উৎসাহিত করণ।
  • 100% সঠিক বিলিং।
  • বিলিং এর জন্য জনবল খরচ হ্রাস।
  • বিলিং ওভারহেড(কাগজ/কালি) হ্রাস।

প্রি-পেমেন্ট মিটারের সুবিধা (গ্রাহক) :

  • পূর্বের বিল হতে 01% রিবেট দেওয়া হচ্ছে।
  • আনুমানিক(ভূতুরে) বিল নাই।
  • ব্যবহৃত লোড মাফিক দৃশ্যমান বিদ্যুৎ খরচ।
  • অটো Connection / Disconnection সুবিধা।
  • দাপ্তরিক আনুষ্ঠানিকতা হ্রাস।
  • লো-ক্রেডিট এলার্ম সুবিধা।
  • এমার্জেন্সী ব্যালেন্স, ফ্রেন্ডলী আওয়ার সুবিধা বিদ্যমান।
  • সাপ্তাহিক ও সরকারী ছুটির সময় মিটার বন্ধ হয় না।
  • ভাড়াটিয়া কিংবা সরকারী আবাসনে বিলিং জটিলতা নিরসন।
  • বিল পরিশোধে সময় সাশ্রয়।

Share with :

Facebook Facebook